সোমবার মানবন্ধনে অংশ নিচ্ছেন আলীকদমের মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা


Momtaj Uddin Ahamad প্রকাশের সময় : মার্চ ১২, ২০২৩, ২:৩৯ অপরাহ্ন /
সোমবার মানবন্ধনে অংশ নিচ্ছেন আলীকদমের মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা

এপিসি ডেস্ক:

আলীকদমে আগামীকাল সোমবার (১৩ মার্চ) এমপিওভূক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমুহের শিক্ষক-কর্মচারীরা মানববন্ধনে অংশ নিচ্ছেন। সোমবার দুপুর একটায় আলীকদম প্রেসক্লাব চত্ত্বরে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে।

আলীকদম উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হায়দার আলী জানান, এমপিওভূক্ত বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমুহ জাতীয়করণের একদফা দাবীতে বর্তমানে সারাদেশে কর্মসূচী চলছে। সারাদেশের এমপিওভূক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে গত ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে আমরণ অনশন করছেন।

এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী জাতীয়করণ প্রত্যাশী মহাজোট নামের একটি  মোর্চার ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে। তারা এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয় সরকারি কোষাগারে জমা নিয়ে প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারিকরণ ঘোষণার দাবি জানাচ্ছেন।

জানতে চাইলে আলীকদম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুঃ বদিউল আলম বলেন, স্বাধীনতার ৫০ বছর পেরিয়ে গেলেও বেসরকারি এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা পূর্ণাঙ্গ সুযোগ-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। পাঠ্যক্রম, সিলেবাস, আইন এবং একই মন্ত্রণালয়য়ের অধীনে শিক্ষাব্যবস্থা পরিচালিত হলেও শিক্ষাব্যবস্থায় সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষক-কর্মচারীদের সুযোগ-সুবিধা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে ব্যাপক পার্থক্য দেখা যাচ্ছে। তিনি বলেন, বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমুহ জাতীয়করণ হলে সরকারি ঘোষিত স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনে ফলপ্রসু হবে।

শিক্ষক নেতারা বলছেন, অধ্যক্ষ থেকে কর্মচারী পর্যন্ত নামমাত্র এক হাজার টাকা বাড়ি ভাড়া, ৫শ’ টাকা চিকিৎসা ভাতা এবং উৎসব ভাতা পান ২৫ শতাংশ। অবসর ও কল্যাণ ট্রাস্টে শিক্ষক-কর্মচারীদের কাছ থেকে প্রতিমাসে বেতনের ১০ শতাংশ কেটে রাখলেও এখনো ৬ শতাংশের বেশি সুবিধা দেয়া হয় না এবং বৃদ্ধ বয়সে যথাসময়ে এ টাকা প্রাপ্তির নিশ্চয়তা নেই।

সব এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারি করা হলে এ বৈষম্য নিরসন হবে বলে তারা জানান। তাই শিক্ষকরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয়, জমানো টাকা সরকারি কোষাগারে নিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সরকারিকরণের দাবি জানাচ্ছেন।