আলীকদমের ঝর্ণা থেকে পড়ে এক ট্যুর অপারেটরের মৃত্যু


Momtaj Uddin Ahamad প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১৩, ২০২৩, ৪:২৬ অপরাহ্ন /
আলীকদমের ঝর্ণা থেকে পড়ে এক ট্যুর অপারেটরের মৃত্যু

মোঃ শাহ আলম, আলীকদম:

বান্দরবানে আলীকদম উপজেলায় দুছড়ি সাইংপ্রা ঝর্ণায় বেড়াতে গিয়ে, মোহাম্মদ আতাহার ইসরাক রাফি(২৯) নামের এক ট্যুর অপারেটরের মৃত্যু হয়েছে।

৪নং কুরুকপাতা ইউনিয়নের, ৪নং ওয়ার্ড খ্যামচং পাড়া সংলগ্ন দুছড়ি সাইংপ্রা ঝর্ণায় এই ঘটনা ঘটে।

নিহত মোহাম্মদ আতাহার ইসরাক রাফির বাড়ি কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার বদরখালী ১৪নং ইউনিয়নে সওকত আলীর ছেলে।

সে চট্টগ্রাম ইসলামী ইউনিভার্সিটিতে এমবিএ অধ্যায়নরত ছিল।

রাফি ও তার বউ বর্ষা ইসলাম দেশব্যাপী বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে ট্রাবেল পরিচালনা করত। সর্বশেষ ২৫ জন টুরিস্ট একটি দল দিয়ে তারা সাইংপ্রা ঝর্ণায় যায়।

আলীকদম টুরিস্ট গাইড সমিতির যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোঃ নুরুল ইসলাম রাজু  বলেন, ঢাকা থেকে আগত ২৫ জনের একটি পর্যটক দল সাইংপ্রা ঝর্ণা যায়।

তাঁরা স্থানীয় গাইডের সাথে কোন রকম যোগাযোগ না করে থানছি সড়কের ২১ কিলোমিটার এলাকার বিন্দুগামী সড়ক পথে হেঁটে দুছড়ি বাজারে পৌঁছে।

সেখান থেকে স্থানীয় গাইড না নিয়ে সাইংপ্রা ঝর্ণা যায়।

রাজু বলেন, স্থানীয় গাইড না নেওয়ার কারণে দুর্ঘনার পর স্থানীয়ভাবে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

নিহত রাফির ট্যুরে সফর সঙ্গী হিসেবে থাকা তার স্ত্রী বর্ষা ইসলাম জানান, তারা ১২ তারিখ বিকাল ৪টায় ঝর্ণায় পৌছার পর সবাই ঝর্ণায় দেখছিল। এর একফাঁকে রাফি ঝর্ণার উপরে ওঠতে গেলে পা পিছলে পড়ে গিয়ে মারাত্মক আহত হয়।

পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে মাথায় প্রচন্ড আঘাত পাওয়ার কারণে রক্তকরণ হয়ে মারা যায়।

সেনা সুত্রে জানাযায়, ঘটনা স্থলের পাশ্ববর্তী খ্যামচং পাড়া গিয়ে সেনাবাহিনীর একটি স্কুয়াট লাশ উদ্ধার করে। অত্যন্ত দুর্গম হওয়াই উদ্ধার করতে সময় লেগেছে। লাশ ঘটনার ২৪ ঘন্টা পর আলীকদম সদরে রাত ৮টায় পৌঁছায়।

এদিকে ৪নং কুরুকপাতা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ক্রাত পুং ম্রো জানান, ঘটনাস্থল অত্যন্ত দুর্গম এলাকা। পাশাপাশি রাত বেশি হওয়ায় সেখানে মোবাইল নেটওয়ার্ক বিছিন্ন থাকার কারণে উদ্ধারকারী দল রাতে অভিযান পরিচালনা করতে ব্যর্থ হয়। পরে সকালে সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় লাশটি উদ্ধার করা হয়।

আলীকদম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কালাম জানান, ১২ তারিখ রাতে ট্যুর অপারেটরে আহত হওয়ার খবর পাই। সেদিন রাতে সেনাবাহিনী ও স্থানীয় ট্যুর গাইডদের সহযোগিতায় লাশ উদ্ধার করতে তৎপরতা চালানোর পর সেনাবাহিনীর সহযোগিতায় লাশ উদ্ধার করা সম্ভব হয়। পরে আলীকদম সদর হাসপাতালে তার মা-বাবার কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়।

আলীকদম থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) খন্দকার তবিদুর রহমান জানিয়েছেন, আলীকদমের দো’ছড়ি এলাকার সাইংপ্রা ঝর্ণা থেকে পড়ে মোহাম্মদ আতাহার ইসরাক রাফি নামে এক ট্যুর অপারেটরের মৃত্যু হয়েছে। বাকিরা সবাই নিরাপদে আছেন।